২০ বছর বয়সী তরুনের অনলাইন থেকে মাসে আয় প্রায় ৩ লক্ষ টাকা

বর্তমান সময়ে ফ্রীল্যানসিং একটি জনপ্রিয় পেশা। চাকরির পাশাপাশি নানা পেশার মানুষ অবসর সময়টা অনলাইন থেকে আয়ের পিছনে ব্যায় করছেন।

বাংলাদেশের বেকারত্বের সংখ্যা অনেক বেশি, আইএলওর হিসাবে ২০১০ সালে বাংলাদেশে ২০ লাখ লোক বেকার ছিল। ২০১২ সালে ছিল ২৪ লাখ। ২০১৬ সালে তা ২৮ লাখে উঠেছে। ২০১৯ সালে এ সংখ্যা ৩০ লাখে ওঠার আশঙ্কা করছে আইএলও। তাই বর্তমান দেশের যুবসমাজ চাকরির পিছনে কম দৌড়ে নিজে কিছু করার চেষ্টা করছে। এ বিষয়ে মাননীয় প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনাও অনুপ্রেরনা যুগিয়েছেন। এবং এ বিষয়ে নিয়মিত তরুণদের জন্য আইসিটি মন্ত্রণালয় কাজ করে যাচ্ছে।

তেমনই একজন তরুন যুবক যশোর ঝিকগাছার ছেলে লিমন হোসেন, মাত্র ২০ বছর বয়সে এন্ড্রোইড এপ্স ডেভেলপমেন্ট এবং মার্কেটিংয়ে সফলতা অৰ্জন করেছেন। পাশাপাশি দাঁড় করিয়েছে নিজের ব্যাক্তিগত প্রতিষ্ঠান সফটনেক্সট আইটি (web: softnexit.com)।

তার সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা যায়, তিনি ২০১৪ সাল থেকে এন্ড্রোইড এপ্স ডেভেলপমেন্টের উপর গুগলের ব্লগ পড়ে এবং ইউটিউবের ভিডিও দেখে নিজে নিজে কোডিং শিখতে থাকেন। এবং ২০১৫ সালের শেষের দিকে তিনি প্লেস্টোরে এন্ড্রোইড এপ্স পাবলিশ করেন এবং মার্কেটিং শুরু করেন। তবে তার এই যাত্রা এতটাও সহজ ছিলো না। প্রথমে তিনি বেশ কয়েকবার ব্যার্থ হন, এবং ২০১৬ তে তিনি পুনরায় এপ্স তৈরি করে, প্লেস্টোরে পাবলিশ করে মার্কেটিং শুরু করেন। এবং এরপর আর তাকে পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। নিজের লেখাপড়ার পাশাপাশি তিনি হয়ে উঠেছে একজন তরুণ উদ্যোক্তা এবং সফল এন্ড্রোইড এপ্স ডেভেলপার।

এছাড়াও তিনি ফাইবার এবং আপওয়ার্কের ফ্রীলান্সার হিসেবে নিয়মিত কাজ করছেন। মাসে আয় করছেন প্রায় ৩ লক্ষ টাকা।

তিনি জানান, করোনাকালীন সময়ে ইতিমধ্যে তার প্রতিষ্টান (softnextit.com) দেশব্যাপি তরুণ শিক্ষার্থীদের জন্য ফ্রি এন্ড্রোইড এপ্স ডেভেলপিং এবং মার্কেটিং কোর্স চালু করেছে। যে কোর্সের মাধ্যমে এন্ড্রোইড এপ্স ডেভেলপিং সম্পর্কে খুব সহজেই বেসিক ধারণাটা পাওয়া যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here